বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৩rd সেপ্টেম্বর ২০১৮

নন-ডেস্ট্রাকটিভ টেষ্টিং বিভাগ

উদ্দেশ্য

প্রায়োগিক গবেষণার মাধ্যমে এনডিটি বিষয়ক বিজ্ঞান এবং চর্চার উন্নয়ন ও অগ্রগতি সাধন এবং শিল্প ক্ষেত্রে এই প্রযুক্তি প্রয়োগের মাধ্যমে আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে দেশকে এনডিটি প্রযুক্তিতে আত্মনির্ভরশীল ও স্বয়ং সম্পূর্ণ করে তোলা।

গবেষণা-উন্নয়ন/শিক্ষা কার্যক্রম

এনডিটি (নন-ডেষ্ট্রাকটিভ টেষ্টিং) বা নিধ্বংসী পরীক্ষা হলো কোন বস্ত্তকে না ভেঙ্গে সম্পূর্ণ অক্ষত অবস্থায় রেখে তার বাইরে বা ভিতরে লুকায়িত বিভিন্ন ধরনের ক্রটি যা বস্ত্তটিকে ব্যবহার অনুপযোগী তথা বস্ত্তটির গুণগত মান হ্রাস করে ফেলে তা খুঁজে বের করার পদ্ধতি। এ প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে শিল্পে উৎপাদিত পণ্যের কাঠামোগত অবস্থা ও পণ্যের ব্যবহারিক নির্ভরযোগ্যতার নিশ্চয়তা প্রদান, বস্ত্ততে অন্তর্নিহিত ক্রটি জনিত কারণে উদ্ভূত সম্ভাব্য দূর্ঘটনা রোধসহ পরিবেশ ও মানব জীবন রক্ষা করা, উৎপাদন পদ্ধতির নিয়ন্ত্রণ সাধন, পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণ ও মানের নিশ্চয়তা প্রদানসহ সময় ও উৎপাদন সংশ্লিষ্ট দ্রব্যের অপচয় রোধের মাধ্যমে গ্রাহকদের সন্তষ্টি প্রদান সম্ভব। পরমাণু শক্তি কেন্দ্র, ঢাকার এনডিটি বিভাগ দেশে এনডিটি বিষয়ক গবেষণা ও উন্নয়ন, জ্ঞান অর্জন, চর্চ্চা ও প্রচারের জন্য দেশের একমাত্র প্রতিষ্ঠান হিসাবে সুপরিচিত। শিল্পক্ষেত্রে পরমাণু শক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে এ বিভাগ দেশীয় শিল্প-কারখানায় এনডিটি প্রযুক্তি প্রয়োগের ক্ষেত্রে বৈদেশিক নির্ভরশীলতা লাঘবে এবং দেশকে এনডিটি প্রযুক্তিতে স্বয়ংসম্পূর্ণ করে তোলার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। দেশে বিরাজমান শিল্প প্রতিষ্ঠানের চাহিদার সাথে সামঞ্জস্য রেখে এনডিটি বিভাগ কর্তৃক নিম্নলিখিত ক্ষেত্রসমূহে প্রচলিত ও আধুনিক পর্যায়ে গবেষণা কর্মসূচী গ্রহন করা হয়েছেঃ

  • রেডিওগ্রাফিক টেষ্টিং পদ্ধতি
  • আল্ট্রাসনিক টেষ্টিং পদ্ধতি
  • ম্যাগনেটিক পার্টিকেল ও লিকুইড পেনিট্রেন্ট টেষ্টিং পদ্ধতি
  • এডি কারেন্ট টেষ্টিং পদ্ধতি
  • কনক্রিট অবকাঠোমার গুণগত মান নিরূপণে ব্যবহৃত এনডিটি পদ্ধতি

 

প্রশিক্ষণ ও সনদায়ন কার্যক্রম

ইহা সর্বজন স্বীকৃত যে, এনডিটি পদ্ধতি প্রয়োগের কার্যকারিতা এনডিটি পরীক্ষণের কাজে নিয়োজিত বা এর সাথে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির দক্ষতার উপর নির্ভরশীল। সুতরাং এনডিটি পরীক্ষণের কাজে নিয়োজিত ব্যক্তির যোগ্যতা বৈশ্বিক পর্যায়ে গ্রহণযোগ্য করার লক্ষ্যে আন্তর্জাতিক স্ট্যান্ডার্ড  অনুযায়ী তার প্রশিক্ষণ, পরীক্ষণ ও সনদায়ন গ্রহণ আবশ্যক। দেশে স্থানীয় এনডিটি চর্চ্চাকারীদের জন্য আন্তর্জাতিক মানের একটি শক্তিশালী ও কার্যোপযোগী অবকাঠামো তৈরী এবং এই প্রযুক্তিতে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনের লক্ষ্যে এনডিটি বিভাগ ১৯৮৬ সাল থেকে এনডিটি প্রশিক্ষণ ও সনদায়ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এই কর্মসূচীর অংশ হিসেবে এনডিটি বিভাগ নিয়মিত ভাবে ‘‘এনডিটি পার্সোনেল সার্টিফিকেশন কমিটি’’ (এনডিটি পিসিসি) এর সাথে যৌথ উদ্যোগে বিভিন্ন এনডিটি পদ্ধতির দক্ষতার লেভেল যেমনঃ লেভেল-১, ২ অথবা ৩ এর উপর প্রশিক্ষণ আয়োজন করে থাকে। এই প্রশিক্ষণ কোর্সগুলো IAEA এর স্ট্যান্ডার্ড সিলেবাস IAEA TECDOC-628 “Training Guidelines in Non-Destructive Testing Techniques” অনুসারে পরিচালিত হয় এবং কোর্স শেষে এনডিটিপিসিসি কর্তৃক ISO-9712:2005 অনুযায়ী যোগ্যতা যাচাইয়ের পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়।

এই প্রশিক্ষণ কর্মসূচীর আওতায় অত্র বিভাগ কর্তৃক এনডিটি বিষয়ক বিভিন্ন পদ্ধতির উপর ৭৮ টি জাতীয় প্রশিক্ষণ কোর্সের মাধ্যমে ১২০০ এর অধিক ব্যক্তি এবং বিভিন্ন সংক্ষিপ্ত কোর্স/সেমিনারের মাধ্যমে ৫০০ এর অধিক ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়েছে। সনদধারী ব্যক্তিগণ দেশে ও বিদেশে স্বীকৃত এবং জাতীয় উন্নয়নে সক্রিয় ভূমিকা রাখছে।

 


Share with :

Share with :